পানির প্রবাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় পদ্মা ও মেঘনা নদীতে আগের চেয়ে বেশি ইলিশ মাছ ধরা পড়ায় চাঁদপুরের মাছের আড়তে দাম কিছুটা কমেছে। আগামী কয়েক দিনে দাম আরও কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) বিকালে দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র চাঁদপুরের বড়স্টেশনের আড়তদাররা ইলিশের দাম কমার বিষয়টি জানান।

কয়েক জন আড়তদার জানান, সপ্তাহখানেক আগেও ১০-১৫ মণ ইলিশ মাছ আসত। এখন দিনে ৫০ মণেরও বেশি ইলিশ ঘাটে আসছে। এর মধ্যে ৩০ মণ চাঁদপুরের পদ্মা ও মেঘনা নদীতে ধরা পড়া ইলিশ। বাকিটা নোয়াখালী হাতিয়ার নদীতে ধরা পড়া। সামনে বৃষ্টি হলে এবং নদীতে পানি আরও বাড়লে ইলিশ আরও বেশি ধরা পড়বে বলে আশা করছেন তারা।

বৃহস্পতিবার বড়স্টেশন আড়তে সরজমিন দেখা যায়, ৫০০-৬০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের কেজি ১৩০০ টাকা, ৭০০-৮০০ গ্রাম ওজনের কেজি ১৫০০ টাকা, ৯০০ গ্রাম ওজনের কেজি ১৭০০ টাকা, ১ কেজি ওজনের ইলিশ ২৩০০ টাকা এবং দেড় কেজি ওজনের ইলিশ ২৮০০ হতে ৩০০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। যা কয়েক দিনের আগের চেয়ে প্রতি কেজিতে ৩০০-৪০০ টাকা কম।

স্থানীয় জেলে কাদির বলেন, তারা কয়েক দিন আগের চেয়ে নদীতে বেশি ইলিশ পাচ্ছেন। সামনে হয়ত আরও বেশি পাওয়া যাবে।

কয়েক জন ক্রেতা বলেন, ইলিশের দাম বেশি কমেছে, তা বলা যাবে না। তবে চাঁদপুরের নদীতে ইলিশ বেশি পাওয়া যাচ্ছে, এটাই আশার কথা।

চাঁদপুর মৎস্য সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী শবেবরাত সরকার বলেন, ১ কেজি ওজনের ইলিশের মণ এখন ৭৫ থেকে ৮০ হাজার টাকা, দেড় কেজি ওজনের ইলিশের মণ ১ লাখ টাকার মতো। কিছু দিন পর ‘জো’ অর্থাৎ ইলিশের মৌসুম রয়েছে। তখন ইলিশ আরও বাড়লে ১ কেজি ওজনের ইলিশ ১০০০ টাকা কেজি দরে পাওয়া যাবে বলে তিনি মনে করছেন।

আরও পড়ুন... জীবন নিয়ে উক্তি