পবিত্র রমজান মাস এবার হতে পারে ৩০ দিনের। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলছেন, মধ্যপ্রাচ্যে এবার রোজা হবে ৩০টি। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশেও একই সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ মধ্যপ্রাচ্যের একদিন পর বাংলাদেশে রোজা শুরু হয়েছে। ফলে ওই অঞ্চলে যদি ঈদ ১০ এপ্রিল হয়, তাহলে বাংলাদেশে স্বাভাবিকভাবে ঈদ হবে ১১ এপ্রিল।

সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ বলছে, ‘কাকতালীয়ভাবে’ ঈদের চাঁদের জন্মের দিন আগামী ৮ এপ্রিল পূর্ণ সূর্যগ্রহণ হবে। মধ্যরাতের আগে অর্ধচন্দ্রের উদয় হওয়ার অর্থ এর পরের দিন বেশিরভাগ ইসলামিক দেশে সূর্যাস্তের পর চাঁদ দেখা যাবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে আগামী ১০ এপ্রিল ঈদ হতে পারে বলে জানিয়েছে আমিরাতি মহাকাশ গবেষণা-বিষয়ক সংস্থা।

আমিরাত জ্যোতির্বিদ্যা সংস্থার পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম আল জারওয়ান বলেছেন,
আগামী ১০ এপ্রিল, বুধবার ঈদ হতে পারে। যার অর্থ এবার মুসল্লিরা ৩০টি রোজা রাখবেন।

মুসলিমদের মধ্যে পবিত্র ঈদুল ফিতর ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক এবং আধ্যাত্মিক তাৎপর্য বহন করে, যা সম্প্রদায়ের মধ্যে কৃতজ্ঞতা, সামাজিক বন্ধন এবং ঐক্যের প্রতীক। ঈদুল ফিতরের মাধ্যমে উদযাপিত হয় রোজার চূড়ান্ত এবং ঐশ্বরীয় বিষয়টি।

ঈদের দিনে মুসলমানরা বিশেষ প্রার্থনার জন্য জড়ো হন, যা ‘সালাত আল ঈদ’ নামে পরিচিত। মসজিদ, খোলা মাঠ বা বড় জামাতে অনুষ্ঠিত হয় এই সালাত আল ঈদ। ঈদুল ফিতরের নামাজে কৃতজ্ঞতা, সহানুভূতি এবং দানশীলতার ওপর খুতবা বা আলোচনা করা হয়। নামাজ শেষে পরিবারের সদস্যরা একত্রিত হন, একসঙ্গে খাওয়া-দাওয়া করেন এবং একে-অপরকে উপহারও দিয়ে থাকেন।

এদিকে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মধ্যপ্রাচ্যে যদি ১০ এপ্রিল ঈদ হয় তাহলে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে আগামী ১১ এপ্রিল ঈদ উদযাপিত হবে।

By shawaib

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *