প্রথমবারের মতো নাইটক্লাব খুলেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। চলতি মে মাসেই রাজধানী রিয়াদের অভিজাত এলাকা ‘জাক্সে’ উদ্বোধন করা হয় ‘বিস্ট হাউস’ নামের এই নাইটক্লাবের। মূলত ধনী নাগরিকদের নৈশজীবন উদযাপনের জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি। এতে প্রবেশাধিকার রয়েছে নারীদেরও।

ব্যাপক রক্ষণশীল দেশ হিসেবে পরিচিত সৌদি আরব। এক সময় প্রায় পুরোপুরি অন্তপুরবাসী ছিলেন দেশটিতে নারীরা। কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ তো দূর, একসময় স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখা, সিনেমা হলে গিয়ে ফিল্ম দেখা এমনকি গাড়ি চালানোরও অনুমতি ছিল না তাদের;

কিন্তু দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতায় আসার পর থেকে এই চিত্র বদলাতে শুরু করে। নারীদের জন্য কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের দরজা খুলে যায়, সেই সঙ্গে অন্যান্য সামাজিক বিধিনিষেধও কেটে যেতে শুরু করে।

এই ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হয়েছে বিস্ট হাউসেও। নাইটক্লাবটিতে নারীদের প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে রয়েছে মিউজিক ভেন্যু, একাধিক স্টুডিও, ডাইনিং এরিয়া এমনকি জমজমাট ডিজে পার্টির ব্যবস্থাও।

তবে ১৯৫০ সালে দেশজুড়ে মদ নিষিদ্ধের যে আইন জারি করেছিল সৌদির তৎকালীন প্রশাসন, তা এখনও বলবৎ থাকায় বিস্ট হাউসে মাদক নিষিদ্ধ। হাউসে আগত অতিথিদের কেবল মকটেল (ফল, মধু/সিরাপ দিয়ে তৈরি একপ্রকার অ্যালকোহলমুক্ত পানীয়) এবং বিভিন্ন অ্যালকোহলমুক্ত পানীয় খেতে পারবেন।
নাইটক্লাবে যেসব রক্ষী বা বাউন্সার রয়েছেন, তাদেরও মূল দায়িত্ব হল আগত অতিথিদের মধ্যে কেউ অ্যালকোহল নিয়ে এসেছেন কি না— সেদিকে লক্ষ্য রাখা।

বিস্ট হাউসে অবশ্য সর্বসাধারণের প্রবেশাধিকার নেই। কেবল স্থায়ী সদস্যরাই ক্লাবটিতে প্রবেশ করতে পারবেন; আর বিস্ট হাউসের সদস্য হতে হলে প্রতি বছর সদস্য ফি হিসেবে খরচ করতে হবে অন্তত ১ হাজার ৯০০ ইউরো বা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২ লাখ ৪২ হাজার ৪৬৭ টাকা। সূত্র: ডেইলি মেইল

আরও পড়ুন... জীবন নিয়ে উক্তি