১২ বছরের এক কিশোরের গলায় দুর্ঘটনাক্রমে একটি কয়েন আটকে গিয়েছিল। দীর্ঘ সাত বছর চিকিৎসকরা সফলভাবে কয়েনটি কিশোরের গলা থেকে সরাতে সফল হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। স্থানীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, দীর্ঘ সাত বছর গলায় থাকার পর ১২ বছরের কিশোরের গলা থেকে চিকিৎসকরা আটকে যাওয়া কয়েন অপসারণ করেছেন। তবে এর জন্য জটিল অপারেশন করতে হয়েছে।

খবর অনুসারে, যখন গলায় কয়েন আটকে গিয়েছিল তখন ভুক্তভোগীর বয়স ছিল ৫ বছর। কয়েন অপসারণে সার্জারিতে নেতৃত্ব দেন ‍উত্তর প্রদেশের হারোদি হাসপাতালের ইএনটি সার্জন ডা. বিবেক শিং এবং তার দল।

খবরে বলা হয়েছে, ভুক্তভোগী কিশোর অংকুল বাঘাউলির মুরালিপুরভা গ্রামের বাসিন্দা। গত এপ্রিলে কিশোরটি পরিবারকে তার পাকস্থলীতে ব্যথার কথা জানায়। তাকে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সুস্থ হয়। এরপর গত ৪ জুন সে গলায় ব্যথার কথা জানায়। এরপর তার দাদা তাকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডা. বিবেক শিং তার গলায় একটি রুপি কয়েন খুঁজে পান। কয়েনটি সাতবছর আগে সে গিলে ফেলেছিল। কয়েনটি এমন অবস্থায় ছিল তার খুব বেশি সমস্যা হয়নি। কিন্তু সে জন্ডিসে আক্রান্ত হয়। অবশেষে টেলিস্কোপ পদ্ধতির সার্জারির মাধ্যমে তার গলার কয়েন অপসারণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন... জীবন নিয়ে উক্তি